Helpline: 018-80171717

দেনমহর বীমা ( বাংলায় )
 
পবিত্র কোরআন মজিদে মহান রাব্বুল আলামীন ঘোষণা করেছেন যে, “আর তোমরা খুশি মনে তাদের মোহর দিয়ে দাও”- আল-কোরআন (৪ঃ২৫)। এছাড়াও হাদিস শরীফে বর্ণিত আছে, “যে ব্যক্তি মোহরানা আদায় না করবার দূরভিসন্ধি নিয়ে অল্প বা অধিক মোহরে বিবাহ করল বা করালো এবং পরবর্তীতে উহা প্রবঞ্চনা পূর্বক পরিশোধ না করে মৃত্যু মুখে পতিত হল, সে কিয়ামতে ব্যভিচারীরূপে আল্লাহ তায়ালার সাথে সাক্ষাৎ করবে।” - আল-হাদিস।

বিবাহের মত অতি পবিত্র বন্ধনের পবিত্রতা রক্ষায় দেনমোহর পরিশোধ অত্যাবশ্যকীয় একটি বিষয়। সুতরাং নারীর আর্থ-সামাজিক অধিকার নিশ্চিত করার ব্যাপারে ইসলাম সুনির্দিষ্ট দিক-নির্দেশনা দিয়েছে। স্ত্রীর সম্মান ও আর্থিক নিরাপত্তা বিধানে দেনমোহর পরিশোধ করা স্বামীর জন্য বাধ্যতামূলক কর্তব্য। এক সাথে দেনমোহরের সমপরিমাণ অর্থ বিবাহ পরবর্তীতে পরিশোধের ধর্মীয় বাধ্যবাধকতা পরিপালনের ঝুঁকি নিরসণে ধর্মপ্রাণ মুসলিম ভাইদের জন্য শরীয়াহ্ মোতাবেক অত্যাবশ্যকীয়ভাবে পরিশোধের লক্ষ্যে এনআরবি গ্লোবাল লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেড চালু করেছে দেনমোহর (তাকাফুল) বীমা। বিবাহিত বা অবিবাহিত (যারা বিবাহের পরিকল্পনা করেছেন) সকল মুসলিম পুরুষের জন্য এ বীমা উপকারী হতে পারে।
এই পরিকল্পের বৈশিষ্ট্য সমূহ ঃ
১.    বীমার ধরন ঃ এটি একটি মেয়াদী বীমা।
২.    বীমা অংক ঃ সর্বনিম্ন ৫০,০০০/- এবং সর্বোচ্চ ৫০,০০,০০০/- টাকা।
৩.    প্রবেশকালীন বয়স  ঃ বীমার শুরুতে বীমা গ্রাহকের বয়স সর্বনি¤œ ২১এবং সর্বোচ্চ ৫০ বছর।
৪.    মেয়াদপূর্তিতে বয়স ঃ বীমা গ্রাহকের বয়স সর্বোচ্চ ৬৫ বৎসর।
৫.    বীমার মেয়াদ ঃ সর্বনিম্ন ১০ এবং সর্বোচ্চ মেয়াদ ১৫ বছর পর্যন্ত (যেমন-১০,১১,১২,১৩,১৪,১৫ বছর)  পলিসি প্রদান করা হয়।
৬.    প্রিমিয়াম প্রদান পদ্ধতি ঃ বার্ষিক, ষান্মাসিক,  ত্রৈমাসিক ও মাসিক পদ্ধতিতে প্রিমিয়াম গ্রহণ করা হয়। 
৭.    নমিনী ঃ এই বীমায় নমিনী হবেন গ্রাহকের বিবাহিত স্ত্রী। যাকে পরবর্তীতে বীমার মালিক বা তামলিক হিসেবে গণ্য করা হবে।
দেনমোহর বীমা পরিকল্পের সুবিধাসমূহ
 ঃ
১.    প্রতিপ্রাপ্য ঃ বীমা চলাকালীন সময়ে স্বামীর মৃত্যুতে প্রত্যাশিত পুরো বীমাঅংক মোহরানার দায় হিসেবে স্ত্রী পাবেন। স্ত্রীর মৃত্যুতে স্বামী ইচ্ছা করলে বীমাটি চালু রাখতে পারেন। যেহেতু মোহরানা প্রদান স্বামীর-ই কর্তব্য তাই মেয়াদান্তে ও স্ত্রীর মুদারাবা হিসেবে জমাকৃত অর্থ লাভসহ তাকেই প্রদান করা হবে। এছাড়াও স্বামীর তাবাররু তহবিলে জমাকৃত অর্থের লাভের অংশ (যদি) থাকে নির্দিষ্ট হারে স্ত্রীকে প্রদান করা হবে।
২.    প্রদত্ত প্রিমিয়ামের উপর আয়কর রেয়াত পাওয়া যায়। বীমার টাকাও আয়কর মুক্ত। 
৩.    কাঙ্খিত পরিমাণ আকর্ষণীয় লাভসহ মেয়াদপূর্তি মূল্য এককালীন পরিশোধ করা হয়।
৪.    ইহা একটি দলিল ভিত্তিক পরিকল্প এবং এই পরিকল্পে পাকা রশিদের ব্যবস্থা রয়েছে।
৫.    অল্প টাকায় জীবন বীমার সুবিধা গ্রহণ করা যায়।
৬.    সরাসরি ব্যাংকের মাধ্যমে প্রিমিয়ামের টাকা জমা দেয়ার সুবিধা রয়েছে।
৭.    মেয়াদ শেষে এককালীন টাকা পাওয়ার সুবিধা থাকায় দেনমোহর সহজে পরিশোধ হয়।
৮.    বীমার মেয়াদ গ্রাহক নিজে পছন্দ করে নেয়ার সুযোগ রয়েছে।
৯.    বর্তমান প্রেক্ষাপটে এটি একটি সময় উপযোগী সাহসী পদক্ষেপ এবং কল্যাণকর উদ্যোগ।

 

আপনার যে কোন তথ্যের জন্য যোগাযোগ করুন- HOTLINE: +8801880171717/ +8802-9587734-37/- Website is Renovated.