Helpline: 018-80171717

হজ্জ বীমা ( বাংলায় )
 
ভূমিকাঃ যেহেতু প্রত্যেক আর্থিক ও শারীরিক সামর্থবান ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের জন্য মহান আল্লাহ তায়ালা হজ্ব পালনকে ফরজ করেছেন তাই সকল ধর্মপ্রাণ মুসলিমদের জীবনের ইচ্ছা হলো জীবদ্দশায় পবিত্র হজ্বব্রত পালন করা।  আর তাই সকল ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের এই পবিত্র ইচ্ছা পূরণ সহজ করার লক্ষ্যে এনআরবি গ্লোবাল লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেড বিশেষ সুবিধাযুক্ত হজ্ব বীমা পরিকল্প চালু করেছে।
 
এই পরিকল্পের বৈশিষ্ট্যসমূহ ঃ
১.    বীমার ধরন  ঃ এটি একটি মেয়াদী বীমা।
২.    বীমা অংক ঃ সরকারী হজ্বের খরচ ঘোষণা মোতাবেক বীমা অংক নির্ধারণ করা যেতে পারে। (ওমরা হজ্বের ক্ষেত্রে এটি শিথিলযোগ্য)।
৩.    বীমা প্রবেশকালীন বয়স ঃ বীমার শুরুতে বীমা গ্রাহকের বয়স (পুরুষ-মহিলা) ১৮ বছর থেকে সর্বোচ্চ ৫০ বছর।
৪.    মেয়াদপূর্তীতে বয়স ঃ বীমা গ্রাহকের বয়স সর্বোচ্চ ৬৫ বৎসর।
৫.    বীমার মেয়াদ ঃ ১০, ১২ ও ১৫ বছর।  
৬.    প্রিমিয়াম প্রদান পদ্ধতি ঃ বার্ষিক, ষান্মাসিক ও ত্রৈমাসিক পদ্ধতিতে প্রিমিয়াম গ্রহণ করা হয়। 
৭.    নমিনী ঃ স্বামী/ স্ত্রী/ ছেলে/ মেয়ে/ মা/ বাবা/ ভাই/ বোন-কে যথাক্রমে নমিনী করা যাবে।

 
সুবিধাসমূহ ঃ
হজ্ব বীমা (মুনাফাযুক্ত) তাকাফুল প্রকল্পের যেসব সুবিধা প্রদান করা হয়েছে সেসব সুবিধার সাথে সাথে এই বীমায় বিশেষ কিছু সুবিধা প্রদান করা হয় যা নিম্নরূপ ঃ
১। বীমা গ্রাহক ইচ্ছা করলে মেয়াদের মধ্যে হজ্ব পালনের উদ্দেশ্যে বীমা অংকের নির্দিষ্ট পরিমাণ অংক অগ্রিম উত্তোলন করতে পারবেন।
২। বীমা অংক নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ মেয়াদের মধ্যে একবারই উত্তোলন করা যায়। যেমন-
১৫ বছর মেয়াদের জন্য ঃ ১২বছর মেয়াদ শেষে বীমা অংকের ৫০ ভাগ অথবা ১৩ বছর মেয়াদ শেষে ৬০ ভাগ অথবা ১৪ বছর মেয়াদ শেষে ৭০ ভাগ টাকা অগ্রিম উত্তোলন করতে পারবেন।
১২ বছর মেয়াদের জন্য ঃ ৯ বছর মেয়াদ শেষে বীমা অংকের ৫০ ভাগ অথবা ১০ বচর মেয়াদ শেষে বীমা অংকের ৬০ ভাগ অথবা ১১ বছর মেয়াদ শেষে ৭০ ভাগ টাকা অগ্রিম উত্তোলন করতে পারবেন।
১০ বছর মেয়াদের জন্য ঃ ৭ বছর মেয়াদ শেষে বীমা অংকের ৫০ ভাগ অথবা ৮ বচর মেয়াদ শেষে ৬০ ভাগ অথবা ৯ বছর মেয়াদ শেষে ৭০ ভাগ টাকা অগ্রিম উত্তোলন করতে পারবেন।
৩। বীমা গ্রাহক মেয়াদের মধ্যে বিশেষ সুবিধাযুক্ত হজ্ব বীমা থেকে কোন অগ্রিম টাকা উত্তোলন না করলে মেয়াদের পূর্বে গ্রাহকের মৃত্যুতে তার মনোনীতককে বদলী হজ্বের জন্য মূল্য বীমা অংক অর্জিত মুনাফাসহ প্রদান করা হবে।
৪। যদি মেয়াদের মধ্যে গ্রাহক অগ্রিম টাকা উত্তোলন করেন তবে মেয়াদের পূর্বে গ্রাহকের মৃত্যুতে বীমা অংকের অবশিষ্ট অংশ (অর্জিত মুনাফাসহ) তার মনোনীতককে প্রদান করা হবে।
৫। হজ্ব পালনের জন্য বীমা অংক অংশবিশেষ অগ্রিম উত্তোলন করলে মুনাফা আনুপাতিক হারে কম হবে। উত্তোলন তারিখ থেকে উক্ত উত্তোলন টাকার মুনাফা গণনা করা হবে না।
৬। তামাদি পলিসি পুনরুজ্জীবিত করার জন্য প্রিমিয়াম জমা করার সাথে সাথে অবিরাম ভাল স্বাস্থ্যের ঘোষণা অথবা প্রয়োজনে ডাক্তারী রির্পোট দাখিল করতে হবে। এখানে উল্লেখ থাকে যে, পরবর্তী প্রিমিয়াম দেয় তারিখের পর অতিরিক্ত ৩০ (ত্রিশ) দিনের মধ্যে প্রিমিয়াম জমা করতে না পারলে ঐ সময়ের জন্য মুনাফা প্রদান বন্ধ থাকবে।

 

আপনার যে কোন তথ্যের জন্য যোগাযোগ করুন- HOTLINE: +8801880171717/ +8802-9587734-37/- Website is Renovated.